img

বাংলাদেশে করোনাভাইরাস

মোট আক্রান্ত২৬৬,৪৯৮

সুস্থ১৫৩,০৮৯

মৃত্যু৩,৫১৩

বিশ্বে করোনাভাইরাস

মোট আক্রান্ত২০,৭৮৩,১৭৪

সুস্থ১৩,৬৭৯,৫৫৪

মৃত্যু৭৫১,৪৪৬

খোঁজ নিয়েছেন কি?

image

আনিছুর রহমান, বেনাপোল : সারা বিশ্বের মত মহামারি আকার ধারন করেছে করোনা ভাইরাস বাংলাদেশে। সকল শক্তিশালী দেশকে পরাজয় করে ইতিমধ্যে বিশ্ব জয় করেছে এই ভাইরাসটি। বিশ্বের করোনা ভাইরাস দিন দিন খারাপের দিকে যাচ্ছে। বাংলাদেশ একটি ঘনবসতিপুর্ণ দেশ। বর্তমান পরিস্থিতিতে বিশ্বজুড়ে ভালো নেই মানবজাতি। আজ সমগ্র বিশ্ব জুড়ে অসহায় হয়ে পড়েছে এই মানবজাতি। করোনা নামক এই ভাইরাসটি চীনের ওহান থেকে ছড়িয়ে আজ সারা পৃথিবীর দেশগুলো জয় করে ফেলেছে। এই অনুজীবটি একের পর এক আক্রমন করে চলেছে বড় বড় মন্ত্রী, প্রেসিডেন্ট সহ ক্ষমতাশালীদেরও। তাই এই সময় যারা মানবিক মানুষ তার কি খোঁজ নিয়েছেন সাধারন মানুষের বাড়ি যেয়ে?

বেনাপোল পৌরসভা একটি ছোট শহর। এখানে রয়েছে কয়েকটি বস্তি। কর্মহীন এসব বস্তিবাসী ও হতদরিদ্ররা অসহায় হয়ে পড়েছে। শিশুরা দুধের জন্য কাঁদছে। কেউ কি আছেন তাদের পাশে দাঁড়ানোর মত। রাস্তায় পাগল, পশুপাখি ঘুরে বেড়াচ্ছে তাদের ওকি খোজ নিয়েছেন কোন বিত্তবান মানুষ। হ্যা খোজ যে একেবারে নেয়নি এমনটি নয়। নিয়েছে এই শহরের সেবক হিসাবে মেয়র আশরাফুল আলম লিটন। পাশাপাশি আরো কয়েকজন কয়েকদফা এসব হতদরিদ্র মানুষদের খাদ্রদ্রব্য দিয়েও সহায়তা করেছে। তবে এদের একটানা কাজ না থাকায় এরা হয়ে পড়েছে দিশেহারা। বার বার নেতাদের ও বিত্তবানদের পাশে এসে আবার সাহায্য চেতে লজ্জাও পাচ্ছে এরা। 

খোজ নিয়ে দেখা গেছে বেনাপোল রেলবস্তিতে কয়েকজন ৬ মাসের ৯ মাসের শিশু নিয়ে আছে খুব বিপদে। অনেক মায়ের পুষ্টির অভাবে বুকের দুধ না থাকায় তাদের বাজার থেকে দুধ ক্রয় করে খাওয়াতে হয়। হাতে টাকা না থাকায় এরা অত্যান্ত কস্ট পাচ্ছে। 

অনাগত এসব শিশু আগামি দিনে রাষ্ট্রের কর্নধর। এদের ভবিষ্যাতের কথা ভেবে এগিয়ে আসতে হবে বিত্তবানদের। এসব শিশু আগামি দিনের রাষ্ট্রের সম্পদ। তাই বেনাপোল পৌর মেয়র করোনা শুরুর একটানা যেমন ৫ মাস এই জনপদের মানুষের পাশে আছে। তেমনি অন্যসব বিত্তবানদেরর এগিয়ে আসতে হবে এসব অসহায় মানুষকে সুস্থ সবল রাখতে। এই জনপদে অনেক ধনঢ্য ব্যাক্তি আছে। এরা ইচ্ছা করলে এসব মানুষকে দুধে ভাতেও রাখতে পারে। থাকতে হবে ইচ্ছা। 

মহমারি এই বৈশ্বিক করোনা ভাইরাসের কথা ভেবে যতক্ষন পর্যন্ত মানুষ তাদের কর্ম ফিরে না পাচ্ছে ততক্ষন এগিয়ে আসতে হবে সকল বিত্তবানদের; এসব মানুষের পােেশ। 

আমার জানামতে এই শহরে ও পৌরসভা এলাকায় আছে অনেক অন্ধ, পঙ্গু ও বয়োবৃদ্ধ মানুষ। এদের পাশেও দেখা গেছে পৌর মেয়র আশরাফুল আলম লিটনকে। এছাড়া অন্য কোন নেতা বা বিত্তবানদের এভাবে দেখা যায়নি। সম্প্রতি ঈদুল ফিতরের সময় মানুষ অসহায় হয়ে পড়েছিল তাদের সন্তানদের সীমাই চিনি কিনে খাওয়াতে পারবে কিনা। সেখানে ও প্রায় ১৫ হাজার পরিবারকে চিনি সিমাই সহ অন্যান্য ঈদ উপহার সামগ্রী দিয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছে এই পৌরসভার তরুন মেয়র আশরাফুল আলম লিটন। তবে কিছু নেতা ও বিত্তবানরা ও তাদের স্বজন ও দরিদ্র মানুষকে দিয়েছে এসব উপহার সামগ্র। তবে প্রয়োজনের তুলনায় কম।

বেনাপোল বড় আচড়া গ্রামের সোহাগ হোসেন বলেন, বেনাপোল পৌর মেয়র এর মত যদি এই জনপেদের বিত্তবানরা এগিয়ে আসত হয়ত তাহলে এসব নি¤œ আয়ের মানুষের কস্ট হতো না। তিনি তার ছাত্রলীগ কর্মীদের দিয়েও সারা রমজান মাসে অন্যান্য ত্রানের পাশাপাশি সবজি ও বিতরন করেছেন। আমরা চাই সকল বিত্তবানরা মানবিক হোক। সকলে অসহায় মানুষের পাশে এসে দাঁড়াক। সারা বিশ্ব বেনাপোলকে দেখে শিক্ষা নিবে কি ভাবে মানুষের পাশে বিপদেন সময় দাঁড়াতে হয়।